Constitution

 

˜ গঠনতন্ত্র  ™

 

  

 যেহেতু ১৯৫৪ সালে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে অর্থনীতি বিভাগ প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পর থেকে অদ্যাবধি বিভাগ ভিত্তিক বিভাগের প্রাক্তন ছাত্র-ছাত্রীদের নিয়ে কোন এ্যালামনাই এসোসিয়েশন গঠিত হয়নি; যেহেতু এই দীর্ঘ সময়ে বিভাগ থেকে ডিগ্রীপ্রাপ্ত ছাত্র-ছাত্রী ও বিভাগের প্রাক্তন ও বর্তমান শিক্ষকদের মধ্যে যোগাযোগের কোন সাধারণ ফোরাম নেই; যেহেতু সমগ্র দেশে বিচ্ছিন্ন ও বিক্ষিপ্তভাবে থাকা বিভাগের সহস্র সহস্র প্রাক্তন ছাত্র-ছাত্রী ও শিক্ষক নিজেদের মধ্যে পারস্পরিক যোগাযোগ বৃদ্ধি, অর্থনীতি বিভাগের  তথা  রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়  ক্যাম্পাসের সাথে পুরাতন সম্পর্ক ঘনিষ্টভাবে বজায় রাখতে ইচ্ছুক; যেহেতু বিশ্বায়নের এই যুগে যুগধর্মী শিক্ষাদান ও শিক্ষাগ্রহণে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় অর্থনীতি বিভাগের লজিসটিক সাপোর্ট, সেমিনার, সিম্পোজিয়াম ইত্যাদি অনুষ্ঠানের আর্থিক সীমাবদ্ধতা প্রাক্তন ছাত্র-ছাত্রীরা আন-রিকভাবে অনুভব করেন; যেহেতু ২০১০ সালে জানুয়ারী মাসে অনুষ্ঠিত বিভাগের সুবর্ণ জয়ন-ীতে অংশগ্রহণকারী এ্যালামনাইবৃন্দ বিভাগভিত্তিক একটি স'ায়ী এ্যালামনাই এসোসিয়েশন করার জন্য দৃঢ় মতামত প্রকাশ করেছিলেন; সেহেতু  আমরা আজ ৪ঠা  চৈত্র ১৪১৭ ( ১৮ই মার্চ, ২০১১ )প্রস-াবিত এ্যালামনাই এসোসিয়েশনের সদস্যবৃন্দ সাধারণ সভায় মিলিত হয়ে সমিতির কার্যাবলী সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার নিমিত্তে নিুাকে্ত গঠনতন্ত্র সর্বসম্মতভাবে  গ্রহণ করলাম।

 

 ১। সমিতির নাম :অর্থনীতি বিভাগ এ্যালামনাই এসোসিয়েশন,  রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়।

 

Economics Department Alumni Association, Rajshahi University ( EDAARU)

২।        অর্থনীতি বিভাগ এ্যালামনাই এসোসিয়েশন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় এর প্রধান কার্যালয়, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় অর্থনীতি বিভাগে হবে। কার্য নির্বাহী কমিটির অনুমোদনক্রমে দেশের বা বিদেশের বিভিন্ন স'ানে এর শাখা স'াপন করা যাবে।     

 

৩। উদ্দেশ্য ও লক্ষ্য :

 

 ক) এ্যালামনাই এসোসিয়েশনের সদস্যদের নিয়ে ২ বছর অন-র    বিভাগে এ্যালামনাই সম্মেলন অনুষ্ঠা্‌ন;

 

 খ) দেশে  ও   বিদেশে   অবস'ানরত  অর্থনীতি   বিভাগের    এ্যালামনাইদের মধ্যে ঘনিষ্ঠ পারস্পরিক সম্পর্ক  স'াপন;

 

 গ) বিভাগের  শিক্ষা  সহায়ক  ও  উন্নয়নমূলক  কর্মকান্ডে সহযোগিতা;

 

 ঘ) বাৎসরিক সেমিনার/সিম্পোজিয়াম/ওয়ার্কশপ/আলোচনা সভা  ইত্যাদির আয়োজন;

 

ঙ) গবেষণামূলক কর্মসূচী

 

 চ) ষান্মাসিক ঘবংি খবঃঃবৎ প্রকাশনা

 

 ৪।      চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য: অর্থনীতি বিভাগ এ্যালামনাই এসোসিয়েশন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় একটি সম্পূর্ণ অসামপ্রদায়িক, অরাজনৈতিক ও অলাভজনক প্রতিষ্ঠান হবে।

 

৫।      সদস্য পদ: চার শ্রেণীর সদস্য নিয়ে সমিতি গঠিত  হবে, যথা:

 

                                   ক) সাধারণ সদস্য

                                     খ) আজীবন সদস্য

                                     গ) সম্মানিত আজীবন সদস্য

                                     ঘ) সহযোগী সদস্য

 

৬।      সদস্য লাভের পূর্বশর্ত ও সদস্যদের অধিকার ওসুবিধাদি নিুরূপ হবে:-

 

ক) সাধারণ সদস্য  : অর্থনীতি বিভাগ, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অনার্স, মাষ্টার্স, এম.ফিল. পিএইচডি এর যে কোন একটি ডিগ্রী থাকলে তিনি এসোসিয়েশনের সাধারণ সদস্য হতে পারবেন। অর্থনীতি বিভাগের প্রাক্তন ও বর্তমান শিক্ষক সবাই সাধারণ সদস্য হতে পারবেন। সাধারণ সদস্যগণ কার্যনির্বাহী কমিটির নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে পারবেন। সাধারণ সদস্যরা ষান্মাসিক ঘবংি খবঃঃবৎ লাভ করতে পারবেন। তাঁরা কার্যনির্বাহী কমিটি কর্তৃক নির্ধারিত রেজিষ্ট্রেশন ফি’র বিনিময়ে এ্যালামনাই সম্মেলন ও অন্যান্য বিশেষ অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করতে পারবেন।

 

খ) আজীবন সদস্য : সাধারণ সদস্যপদের যোগ্যতা সম্পন্ন কোন ব্যক্তি উপযুক্ত ফি দিয়ে আজীবন সদস্যপদ লাভ করতে পারবেন। তাঁরা সাধারণ সদস্যদের অনুরূপ সকল অধিকার ও সুবিধা ভোগ করবেন।

 

গ) সম্মানিত আজীবন সদস্য : এ্যালামনাই এসোসিয়েশনের কার্যনির্বাহী কমিটি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় অর্থনীতি বিভাগের প্রাক্তন যে কোন বিশিষ্ট শিক্ষক ও প্রাক্তন বিশিষ্ট ছাত্র-ছাত্রীকে এসোসিয়েশনের সম্মানিত আজীবন সদস্যপদ প্রদান করতে পারবে।

 

ঘ) সহযোগী সদস্য : অর্থনীতি বিভাগ থেকে কোন ডিগ্রী গ্রহণ করেননি কিন'  রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় অর্থনীতি বিভাগে কমপক্ষে অনার্স/মাষ্টার্স/এম.ফিল/পিএইচ.ডিতে একবছর অধ্যয়ন করেছেন, এমন প্রাক্তন ছাত্র-ছাত্রী এ্যালামনাই এসোসিয়েশনের সহযোগী সদস্য হতে পারবেন। তারা সাধারণ সদস্যদের মত সুযোগ সুবিধা ভোগ করবেন। কিন' কার্যনির্বাহী কমিটি বা অন্য কোন নির্বাচনে ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারবেন না। তাঁদের চাঁদার পরিমান ও এ্যালামনাই সম্মেলনে অংশগ্রহণ সাধারণ সদস্যদের শর্তের অনুরূপ হবে।

 

৭।      এ্যালামনাই এসোসিয়েশনের উপদেষ্টা মন্ডলী : এ্যালামনাই এসোসিয়েশনের কার্যনির্বাহী কমিটি সম্মানিত আজীবন সদস্যদের মধ্য থেকে পাঁচ জনকে নিয়ে একটি উপদেষ্টা মন্ডলী গঠন করবে। বিশেষ প্রয়োজনে কার্য নির্বাহী 

 

                                                                                              কমিটি উপদেষ্টা মণ্ডলীর পরামর্শ গ্রহণ করতে পারবে।

 

৮।      সদস্যপদের চাঁদা :সাধারণ সদস্যপদ লাভের সময় চাঁদার পরিমান একত্রে দুই বৎসরের চাঁদা চারশত টাকা ও সংস'াপন ফি একশত টাকাসহ মোট পাঁচশত টাকা হবে। পরবর্তীতে বাৎসরিক চাঁদা  দুইশত টাকা হবে এবং আজীবন   সদস্যপদের চাঁদার পরিমান হবে দুই হাজার টাকা। সদস্য চাঁদার পরিমান কার্যনির্বাহী কমিটি তার  সভায় সিদ্ধান- গ্রহণ করে সাধারণ সভায় পুন:নির্ধারণ করতে পারবে।

 

৯ ।    সদস্যপদ নিুবর্ণিত কারণে বাতিল বলে বিবেচিতহবে:

 

ক) যদি যথাসময়ে চাঁদা পরিশোধে ব্যর্থ হন;

 

খ) যদি তিনি লিখিতভাবে পদত্যাগ করেন;

 

গ) যদি তাঁর সদস্যপদ বহাল থাকা এ্যালামনাই এসোসিয়েশনের স্বার্থের পরিপন'ী বলে কার্যনির্বাহী কমিটি প্রস-াব গ্রহণ করে ও সাধারণ সভায় তা অনুমোদন করে;

 

        ঘ)  গ এ বর্ণিত কারণ ব্যতিরেকে পুনরায় চাঁদা  প্রদানে কারও বাতিল সদস্যপদ পুনর্বহাল হবে।

 

১০।     সংগঠন: ক) এ্যালামনাই এসোসিয়েশনের কার্যাবলী একটি কার্যনির্বাহী কমিটি পরিচালনা করবে। কমিটিতে একজন সভাপতি,  পাঁচজন সহ সভাপতি, একজন কোষাধ্যক্ষ, একজন সাধারণ সম্পাদক, দুই জন যুগ্ম সম্পাদক, তিনজন সহ সম্পাদক, একজন সাংস্কৃতিক সম্পাদক, একজন একাডেমিক সম্পাদক, ও দশজন সদস্য নিয়ে গঠিত হবে। মোট সদস্য সংখ্যা হবে ২৫।

 

খ) সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক এর পদ কোন কারণে শূন্য হলে জ্যেষ্ঠতম সহ-সভাপতি ও জ্যেষ্ঠতম যুগ্ম সম্পাদক যথাক্রমে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করবেন। কোষাধ্যক্ষের পদ শূন্য হলে কার্যনির্বাহী কমিটি কমিটির যে কোন সদস্যকে কোষাধ্যক্ষের দায়িত্ব দিতে পারবেন।

 

 

গ) সভাপতি কোন কারণে পদত্যাগ করতে চাইলে জ্যেষ্ঠতম সহ সভাপতির নিকট তাঁর পদত্যাগ পত্র জমা দেবেন। কমিটির অন্যান্য কর্মকর্তা যে কেউ পদত্যাগ করলে তিনি সভাপতির নিকট পদত্যাগপত্র পেশ করবেন।

 

ঘ) এ্যালামনাই এসোসিয়েশনের সাংগঠনিক কাজের সুবিধার্থে সভাপতি ও কোষাধ্যক্ষ অর্থনীতি বিভাগ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের শিক্ষকদের মধ্য থেকে অথবা রাজশাহীতে স'ায়ীভাবে অবস'ানরত অর্থনীতি বিভাগের  প্রাক্তন শিক্ষক অথবা এ্যালামনাইদের মধ্য থেকে হবেন। এ্যালামনাই এসোসিয়েশনের কার্যাবলী যাতে ব্যাহত না হয় সে জন্য সাধারণ সম্পাদক বিভাগের বাইরে থেকে হলেও জ্যেষ্ঠতম যুগ্ম সম্পাদক সর্বদা অর্থনীতি বিভাগ থেকে হবেন।

 

ঙ) সভাপতি বা তাঁর অনুপসি'তিতে উপসি'ত জ্যেষ্ঠতম সহ-সভাপতি এসোসিয়েশনের সভায় সভাপতিত্ব করবেন। সভাপতি বা সহ সভাপতিদের কেউ উপসি'ত না থাকলে উপসি'ত কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্যরা সভার সভাপতি নির্বাচিত করবেন।

 

চ) গঠনতন্ত্রের বিধানের ব্যাখ্যার ব্যাপারে কার্যনির্বাহী কমিটির সংখ্যাগরিষ্ঠের সিদ্ধান- চূড়ান- বলে বিবেচিত হবে।

 

ছ) কার্যনির্বাহী কমিটির মোট সদস্যের মধ্যে সাত জনের উপসি'তি কোরাম বলে গৃহীত হবে। কোন সভায় কোরাম না হলে যারা উপসি'ত হবেন তাদের উপসি'তিতে পরবর্তী সভায় তারিখ নির্ধারণ করতে হবে। পরবর্তী সভায় যে কোন সংখ্যক সদস্য উপসি'ত হলে তা কোরাম বলে গণ্য হবে।

 

জ) প্রতি চার মাসে অন-ত: ্‌ একবার কার্যনির্বাহী কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হবে। সাধারণ সম্পাদক যদি চার মাসের মধ্যে সভা আহ্বান করতে ব্যর্থ হন, সভাপতি নিজে কার্যনির্বাহী কমিটির সভা আহ্বান করবেন।

 

ঝ) কার্যনির্বাহী কমিটির সভা অনুষ্ঠানের অন-ত: দুই সপ্তাহ পূর্বে প্রত্যেক সদস্যের নিকট সভার নোটিশ পাঠাতে হবে। অতি জরুরী ব্যাপারে সিদ্ধান-  গ্রহণের প্রয়োজনে সভাপতি স্বল্প সময়ে নোটিশ দিয়ে বা নোটিশ ব্যতিরেকে সভা ডাকার নির্দেশ দিতে পারেন। সভাপতির  অনুপসি'তিতে জ্যেষ্ঠ সহ সভাপতির অনুমতিক্রমে সাধারণ সম্পাদক বা তার অনুপসি'তিতে যুগ্ম সম্পাদকদ্বয়ের মধ্যে উপসি'ত জ্যেষ্ঠ  যুগ্মসম্পাদক অথবা অন্য যুগ্ম সম্পাদক সভা আহ্বান করবেন।

 

ঞ) কার্যনির্বাহী কমিটির সভায় উপসি'ত সদস্যদেরসাধারণ সংখ্যাগরিষ্ঠতার ভিত্তিতে কমিটি সিদ্ধান-    গ্রহণ করবে।

 

ট) সভাপতির নিজস্ব ভোট থাকবে। উপরন- কোন সিদ্ধানে-র ব্যাপারে সংখ্যাগরিষ্ঠতা লাভে সমস্যা হলে, তিনি তার কাষ্টিং ভোট প্রয়োগ করতে পারবেন।

 

১১।       গঠনতন্ত্রের সংশোধন:এ্যালামনাই এসোসিয়েশনের সাধারণ সভায় উপসি'ত সদস্যদেও সংখ্যাগরিষ্ঠতার ভিত্তিতে গঠনতন্ত্র সংশোধন করা যাবে। মোট সদস্যের ২০ শতাংশ সাধারণ সভার কোরাম হিসাবে গৃহীত হবে।

 

১২।      কার্যনির্বাহী কমিটির কর্মকর্তাদের ক্ষমতা ও   কর্তব্য :

 

ক) সভাপতি : সভাপতি কার্যনির্বাহী কমিটির প্রধান হিসাবে গণ্য হবেন। তিনি কমিটির সভায় এ্যালামনাই সম্মেলন ও অন্যান্য সভায় সভাপতিত্ব করবেন।

 

খ) সহ সভাপতি : সহ সভাপতি সভাপতিকে তাঁর কর্তব্য ও  কার্য পালনে সহযোগিতা করবেন। সভাপতির অনুপসি'তিতে সভায় উপসি'ত জ্যেষ্ঠতম সহ সভাপতি সভাপতির দায়িত্ব পালন করবেন।

 

গ) কোষাধ্যক্ষ : কোষাধ্যক্ষ এ্যালামনাই এসোসিয়েশনের তহবিল রক্ষক বলে গণ্য হবেন। তিনি এ্যালামনাই এসোসিয়েশনের আয়-ব্যয়ের হিসাব সংরক্ষণ করবেন। তিনি  বিধিসম্মতভাবে সাধারণ সম্পাদক কর্তৃক দাবিকৃত অর্থ প্রদান করবেন।

 

ঘ) সাধারণ সম্পাদক : সাধারণ সম্পাদক সভাপতির পরামর্শ ক্রমে কার্যনির্বাহী কমিটির সভা, এসোসিয়েশনের দ্বিবার্ষিক সম্মেলন, সাধারণ সভা ও অন্যান্য সভা আহবান করবেন। তিনি যাবতীয় দলিলপত্র সংরক্ষণ ও চিঠিপত্রের আদান প্রদান করবেন। তিনি এসোসিয়েশনের সিদ্ধান-সমুহ কার্যকরী করবেন।

 

ঙ) যুগ্ম সম্পাদক : যুগ্ম সম্পাদকগণ সাধারণ সম্পাদককে তার দায়িত্ব ও কর্তব্য পালনে সর্বাত্মক সহযোগিতা  ও সাহায্য প্রদান করবেন । সাধারণ সম্পাদকের অনুপসি'তিতে জ্যেষ্ঠতম যুগ্ম সম্পাদক সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করবেন।

 

চ) সহ সম্পাদক :      সহ - সম্পাদকগণ  সাধারণ    সম্পাদকের   বন্টনকৃত   দায়িত্ব পালন করবেন।

 

ছ) সাংস্কৃতিক  সম্পাদক : সাংস্কৃতিক সম্পাদক বিভিন্ন সময়ে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আয়োজনের দায়িত্ব পালন করবেন।

 

জ) একাডেমিক সম্পাদক : একাডেমিক সম্পাদক এসোসিয়েশনের    একাডেমিক     সেমিনার  /    সিম্পোজিয়াম / আলোচনা অনুষ্ঠানের দায়িত্বে  থাকবেন।

 

ঝ) সদস্য :  কার্যনির্বাহী   কমিটির সদস্যগণ কমিটি  কর্তৃক  অর্পিত যে কোন দায়িত্ব পালন করবেন।

 

১৩।     কার্য নির্বাহী কমিটির দায়িত্বকাল :সাধারণত: কার্য নির্বাহী কমিটি দুই বৎসর মেয়াদী হবে। দ্বি-বার্ষিক এ্যালামনাই সম্মেলনে নতুন কার্য নির্বাহী কমিটি গঠিত হবে।

 

১৪।     তহবিল গঠন ও পরিচালনা : সদস্যদের প্রদত্ত চাঁদা, অনুদান ও বিভিন্ন উপায়ে সংগৃহীত অর্থ নিয়ে এসোসিয়েশনেরতহবিল গঠিত হবে। এসোসিয়েশনের কোষাধ্যক্ষ এবং সাধারণ সম্পাদক/সভাপতির যুক্ত স্বাক্ষরে এসোসিয়েশনের ব্যাংক হিসাব পরিচালিত হবে। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজনেস ষ্টাডিজ অনুষদের দুজন শিক্ষক দিয়ে এসোসিয়েশনের বাৎসরিক হিসাব অডিট করতে হবে।

 

১৫।     নির্বাচন : দ্বিবার্ষিক এ্যালামনাই সম্মেলনে নির্বাচনের মাধ্যমে এসোসিয়েশনের নতুন কার্যনির্বাহী কমিটি গঠিত হবে। একজন প্রধান নির্বাচন কমিশনার ও দুইজন নির্বাচন কমিশনার নিয়ে নির্বাচন কমিশন হবে। কার্য নির্বাহী কমিটির কোন সদস্য নির্বাচন কমিশনের সদস্য হবে পারবেন না এবং এই নির্বাচন কমিশনের সদস্যগণ নির্বাচনে প্রার্থী হতে পারবেন না। প্রত্যেক আজীবন সদস্য ও বার্ষিক চাঁদা প্রদানকারী সাধারণ সদস্য নির্বাচনে ভোটদান ও অংশ    গ্রহণ করতে পারবেন। নির্বাচন সংক্রান- যাবতীয় প্রশ্নে নির্বাচন কমিশনের সিদ্ধান- চূড়ান- বলে গণ্য হবে।

 

১৬।     এ্যালামনাই সম্মেলনে ছাত্র-ছাত্রী অংশ গ্রহণ :এ্যালামনাই এসোসিয়েশনের দ্বিবার্ষিক সম্মেলনে বা অন্যান্য সভায় কার্যনির্বাহী কমিটির অনুমোদনক্রমে অর্থনীতি বিভাগের বর্তমান ছাত্র-ছাত্রীরা সম্মেলনের জন্য কার্য নির্বাহী কমিটি কর্তৃক ধার্য বিশেষ ফি দিয়ে অংশ গ্রহণ করতে পারবে। কিন' তারা সদস্য পদ বা ভোটাধিকার বা অন্য কোন সুবিধা ভোগ করতে পারবে না। 

You are here: Home Constitution